Thu. Feb 9th, 2023

ভাবুন তো কেন আমি বললাম চাকরি আপনাকে খুঁজবে!!

আজকে আমি আমার এই ব্লগে আমি আপনাকে যা জানাতে চলেছি তা রীতিমত আপনাকে আর্থিক, মানসিক সকল দিক দিয়ে সস্থি দেবে।



 

আমি আপনাদের সাথে আমার একটা সফলতার গল্প বলব। আমার নাম মোঃ মিঠুন মিয়া, বয়স ৩০ বছর, শিক্ষাগত কোনো প্রকার যোগ্যতা নাই বললেই চলে। তবুও বলে রাখা ভালো আমি ৮ম শ্রেণী পর্যন্ত পড়াশুনা করেছি। তবে আপনি এটা ভাববেন না আমার কোনো যোগ্যতা নাই।আপনারা কে কিভাবে নিবেন জানি না। তবে আমি মনে করি পৃথিবীতে আমরা যে যেখানে থাকিনা কেন আমাদের সকলের একটাই লক্ষ্য! যাইহোক দিন শেষে ইনকামের একটা সোর্স তৈরী করতে হবে, এটাই আমাদের সকলের লক্ষ্য। আর আমার এই পোস্টে আমি আপনাদেরকে সেই ইনকামের সোর্স সম্পর্কে ই জানাতে চলেছি।

আমি চাকরি না করেও কিভাবে প্রতিমাসে প্রায় ৫০০০০০ ইনকাম করি?

আপনি হয়তো ভাবছেন আমি আপনাদের সাথে মজা করছি। তবে না! আমি আপনাদের সাথে মোটেও মজা করছি না।



My Story:

আমি চুয়াডাঙ্গা জেলার একটি প্রত্যন্ত গ্রামে একটি হত দরিদ্র পরিবারে জন্ম গ্রহণ করি ১৯৯৪ সনে। আমার বাবা একজন দিনমজুর এবং সম্পদ বলতে কিছুই নেয় বলতে গেলেই চলে। যাইহোক সব কথা নাই বা বললাম! এরপর ২০০৮ সালে ৮ম শ্রেণী পাশ করি। তবে দরিদ্র পরিবারে জন্ম নেয়ায় লেখা পড়া আর করা হয়নি। আর এ জন্যই ২০১০ এর দিকে আমি ও দিনমজুর হয়ে গেলাম। এরপর ৪-৬ বছর আমি এ ভাবেই জীবন যাপন করতে থাকি। আমি আমার লাইফে অনেক কিছু Discover করার চেষ্টা করেছি। আমি কি করিনি! নির্মাণ শ্রমিক, ইটের ভাটায়, কাঠ মিস্ত্রি, মাঠের কাজ, ভ্যান চালক, আরো অনেক কাজ।

Interesting:

তবে বলে রাখা ভালো যে আমি ৮ম শ্রেণী পাশ করার পর একটি ইলেকট্রনিক্স সার্ভিসিং এর দোকানে কাজ করতাম, এবং তখনকার সময় CD বা VCD খুব বেশি পরিমান শুরু হয়ে যায়। আর আমি যে দোকানটিতে কাজ করতাম সে দোকানটি ছিল CD বা VCD আতুর ঘর। আর এজন্যই আমাকে কম্পিউটরে CD/VCD burning করতে হতো.আমি মূলত সেখান থেকে ই কম্পিউটারের বেসিক সবকিছু শিখেছিলাম।এটা ছিল ২০১০ এর দিকে. আর এভাবেই চলতে থাকে আমার জীবন জীবিকা।


Story of 2020:

আপনারা সবাই জানেন ২০২০ আমরা করোনা নামক পেন্ডামিক কালের সাথে পরিচিতি পাই। করোনা কালে কোনো ইনকামের রাস্তা আমার কাছে ছিল না। সবসময় বাড়িতে বসে থাকতাম। এরই মধ্যে আমার এক শোভাকাংখী বন্ধু আমাকে বললো ভাই Online থেকে ইনকাম করা যায় জানেন কি? আমি বললাম আমি তো জানিনা কিভাবে করতে হয়। আর আমি কিভাবে পারবো যখন আমি খুব বেশি শিক্ষিত ও না. সে বললো আপনি না কম্পিউটার জানেন।আমি বললাম হা জানি তো।

অনলাইনে ইনকাম-দেখি তবুও যদি কিছু হয়

আমার কাছে খুব বেশি দামি না এমন একটি smartphone ছিল। তবে আমি সবসময় offline মেমরি ব্যবহার করে সিনেমা অথবা গান শোনা বা ভিডিও দেখার জন্যই সেটাকে ব্যবহার করতাম। এরপর আমি MB (internet)কিনে ইউটুবে ভিডিও দেখা শুরু করলাম। আমার প্রতিদিনের রুটিন ছিল Online Earning সম্পর্কিত ভিডিও দেখা। আর এভাবেই চলতে থাকে। বেশ কিছু মাস পার করার পর বিষয় গুলো কিছুটা বুঝতে পারি। যে আমি যদি বেশি শিক্ষিত নাও হই তবুও আমি পারবো। কারণ আমি খুব দ্রুত এগুলো শিখতে পারবো।

Fiverr

Online Earning from fiverr freelancing

আমি ২০২২সে প্রায় ২০০০ ডলার ইনকাম করেছি এটা তার প্রমান।\



আপনি যদি ফিভারের থেকে ইনকাম করতে চান তবে fiverr লেখাতে ক্লিক করুন এবং join করুন Fiverr এ আমি আপনাকে সর্বোচ্চ সহায়তা করবো Online Earning করার জন্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *